ইউরেনিয়াম ও থোরিয়াম

বৈশিষ্ট্য: ইউরেনিয়াম ও থোরিয়াম এমন এক ক্ষয়িম্ভু ও অপুনর্ভব প্রকৃতির সম্পদ, যা পারমাণবিক শক্তি উৎপাদনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। থোরিয়াম সুনির্দিষ্ট স্থানে মোনাজাইট বালি থেকে এবং ইউরেনিয়াম ভূগর্ভ থেকে সংগ্রহ করা হয়। ইউরেনিয়ামের তিনটি আইসোটোপ হল 238, 235, 234।

• ব্যবহার ও গুরুত্ব: ইউরেনিয়াম ও থোরিয়ামকে নিম্নলিখিত বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা যেতে পারে- ① পারমাণবিক বিদ্যুৎ উৎপাদন, ② কৃত্রিম উপগ্রহে শক্তির জোগান দেওয়া, ③ যুদ্ধ জাহাজ, সাবমেরিন এবং বিভিন্ন শিল্পে জ্বালানি সরবরাহ, ভূতাপ শক্তি উৎপাদন, ১ ম্যাঙ্গানিজ ও তামা নিষ্কাশনের ক্ষেত্রে।

• পৃথিবীতে ইউরেনিয়ামের বণ্টন (World Distribution of Uranium): 2015 খ্রিস্টাব্দে পৃথিবীর বিভিন্ন স্থানে ইউরেনিয়াম উৎপাদন সম্পর্কে নীচে উল্লেখ করা হল। 2015 খ্রিস্টাব্দে পৃথিবীতে সামগ্রিক ইউরেনিয়াম (ধাতুযুক্ত) উৎপাদনের পরিমাণ প্রায় 60,496 টন। 

অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ দেশসমূহ: ইউরেনিয়াম উৎপাদনের ক্ষেত্রে অন্যান্য উল্লেখযোগ্য দেশগুলি হল আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্র-ভাসকেজ, ক্রোবাট, নিউমেক্সিকো; ইউক্রেন-ইঙ্গুলাস্কি, ভাতৃতি নিষ্কি; ভারত-যদুগোডা, নারোয়া পাহাড়, ভাতিন,

আজমির; মালাউই-কায়ালেকেরা প্রভৃতি। • পৃথিবীতে থোরিয়ামের বণ্টন (World Distribution of Thorium): পৃথিবীতে 2014 খ্রিস্টাব্দের

Global Energy Statistical Year Book-এর তথ্য অনুযায়ী অন্যতম থোরিয়াম উৎপাদক দেশগুলি সম্পর্কে নীচে উল্লেখ করা হল। 2015 খ্রিস্টাব্দের তথ্য অনুসারে পৃথিবীতে মোট থোরিয়াম উৎপাদনের পরিমাণ প্রায় 60522 টন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ