অভিজ্ঞতাবাদ কাকে বলে?

অভিজ্ঞতাবাদ


জ্ঞানের উৎস সম্পর্কিত মতবাদের পরিপ্রেক্ষিতে যে-সমস্ত মতবাদের উল্লেখ করা যায়, তাদের মধ্যে অভিজ্ঞতাবাদ (empiricism) হল একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মতবাদ। অভিজ্ঞতাবাদ মূলত বুদ্ধিবাদের একটি বিরোধী মতবাদরূপেই গণ্য। অভিজ্ঞতাবাদের মূল বক্তব্য হল, আমাদের ইন্দ্রিয় সংবেদন তথা অভিজ্ঞতাই হল জ্ঞানের একমাত্র উৎস (sense experience is the only source of knowledge)। অভিজ্ঞতাবাদ বুদ্ধি বা প্রজ্ঞাকে বর্জন করে শুধু ইন্দ্রিয় সংবেদন তথা অভিজ্ঞতাকেই জ্ঞানের মৌল উৎসরূপে দাবি করে। অভিজ্ঞতাবাদের সমর্থকদের বলা হয় অভিজ্ঞতাবাদী (empiricists)।

জ্ঞানের উৎস সম্পর্কে অভিজ্ঞতাবাদের মূল বক্তব্য: 


চরমপন্থী বা নরমপন্থী যাই হোক না কেন, সমস্ত অভিজ্ঞতাবাদী দার্শনিকের বক্তব্যের মধ্যেই কয়েকটি মূল সুর উঠে আসে। সেগুলিকেই অভিজ্ঞতাবাদের মূল প্রতিপাদ্য বিষয়রূপে গণ্য করা হয়। অভিজ্ঞতাবাদের মুখ্য প্রতিপাদ্য বিষয়গুলি হল-

জ্ঞানের মুখ্য উৎস হিসেবে অভিজ্ঞতা: 


অভিজ্ঞতাবাদ অনুযায়ী ইন্দ্রিয় সংবেদন তথা অভিজ্ঞতাই হল জ্ঞানের মুখ্য উৎস। এই ইন্দ্রিয়ানুভবকে বাদ দিয়ে কখনোই জ্ঞান লাভ করা যায় না। অভিজ্ঞতাবাদীদের মতে, বিশুদ্ধ প্রজ্ঞা বা বুদ্ধি বলে স্বতন্ত্র কোনো বিষয় নেই। বাস্তবের সমস্ত জ্ঞানই অভিজ্ঞতানির্ভর। 

জ্ঞানের একমাত্র পদ্ধতি হিসেবে আরোহাত্মক পদ্ধতি:


অভিজ্ঞতাবাদ অনুযায়ী জ্ঞানের একমাত্র পদ্ধতি হল আরোহাত্মক পদ্ধতি (inductive method), কখনোই অবরোহাত্মক পদ্ধতি (deductive method) নয়। কারণ, আমরা অভিজ্ঞতার মাধ্যমে বিশেষ বিশেষ ঘটনাকে পর্যবেক্ষণ ও পরীক্ষণ করে একটি সাধারণ সূত্র (universal principle) বা ধারণায় উপনীত হই। সুতরাং, সমস্তপ্রকার সামান্য ধারণাকেই অভিজ্ঞতার মাধ্যমে ব্যাখ্যা করা সম্ভব। 

সহজাত ধারণার বর্জন

অভিজ্ঞতাবাদী দার্শনিকগণ বুদ্ধিবাদের মূলভিত্তি অর্থাৎ সহজাত ধারণার বিষয়টিকে নস্যাৎ করেছেন। তাঁদের মতে, সহজাত ধারণা বলে কোনো কিছুই থাকতে পারে না। কারণ, সহজাত ধারণার বিষয়কে কখনোই ইন্দ্রিয় সংবেদনের মাধ্যমে ব্যাখ্যা করা যায় না। তাঁদের মতে, আমাদের সমস্ত ধারণাই প্রাপ্ত হয় ইন্দ্রিয় অভিজ্ঞতার মাধ্যমে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ