সহজাত ধারণাকে লক কীভাবে খণ্ডন করেছেন?

লক কর্তৃক সহজাত ধারণা তত্ত্বের খণ্ডন


প্রখ্যাত বুদ্ধিবাদী দার্শনিক রেঁনে দেকার্ত তাঁর জ্ঞানতত্ত্বের ক্ষেত্রে সহজাত ধারণার বিষয়টিকে উল্লেখ করেছেন। তাঁর মতে, আমাদের মনে এমন কতকগুলি ধারণা বিদ্যমান, যেগুলিকে সহজাত বা আন্তর ধারণা (innate idea) রূপে উল্লেখ করা হয়। তাঁর মতে, সহজাত ধারণাগুলি সমস্তপ্রকার সত্যজ্ঞানের ভিত্তিরূপে গণ্য। এগুলি স্পষ্ট, সুনির্দিষ্ট ও স্বতঃসিদ্ধরূপে স্বীকৃত। ঈশ্বরের ধারণা, নিত্যতার ধারণা, অসীমের ধারণা, পূর্ণতার ধারণা এবং কার্যকারণের ধারণা প্রভৃতি হল সহজাত ধারণা। এই সমস্ত ধারণা সত্যজ্ঞানের মৌল ভিত্তিরূপে গণ্য এবং সেকারণেই এগুলি জ্ঞানতত্ত্বের ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

আরও পড়ুন - সহজাত ধারণা কী?

সহজাত ধারণার বিরুদ্ধে লকের যুক্তি: 


প্রখ্যাত অভিজ্ঞতাবাদী দার্শনিক জন লক এই সমস্ত সহজাত ধারণাকে অস্বীকার করেছেন। তিনি দেকার্তের আন্তর ধারণার কঠোর সমালোচনা করেছেন এবং দাবি করেছেন যে, আন্তর বা সহজাত ধারণা বলে কোনো কিছুই নেই। সহজাত ধারণার বিরুদ্ধে তাঁর যুক্তিগুলি হল:

[1] অভিজ্ঞতা-পূর্ব সহজাত ধারণার অস্তিত্বহীনতা: দার্শনিক লক তাঁর জ্ঞানতত্ত্বে উল্লেখ করেছেন যে, আমাদের সমস্তপ্রকার ধারণা বা জ্ঞান নিঃসৃত হয় অভিজ্ঞতা থেকে। অভিজ্ঞতার পূর্বে কোনো ধারণাই আমাদের মনে জন্মসূত্রে থাকতে পারে না। সুতরাং, জন্মসূত্রে আগত আন্তর বা সহজাত ধারণার প্রকৃত কোনো অস্তিত্বই নেই।

[2] ধারণার জন্মদাতা হিসেবে অভিজ্ঞতা: লক দাবি করেন যে, জন্মসূত্রে আমাদের মন থাকে এক অলিখিত সাদা কাগজের (tabula rasa) মতো। সেখানে আগে থেকে কোনো কিছুই মুদ্রিত থাকতে পারে না। অভিজ্ঞতার কালিতেই সেখানে ধারণা মুদ্রিত হয়। আর সহজাত বা আন্তর ধারণা অভিজ্ঞতার কালিতে চিত্রিত নয় বলে তার কোনো অস্তিত্বই নেই। 
[3] সংবেদন ও অন্তর্দর্শনের বিরোধী: লকের মতে, সেই ধারণাই সত্য, যা হয় সংবেদন অথবা অন্তর্দর্শনের মাধ্যমে লব্ধ। কিন্তু সহজাত ধারণা সংবেদন অথবা অন্তর্দর্শন-কোনোভাবেই লব্ধ ও প্রামাণ্য নয়। সুতরাং, সহজাত ধারণার অস্তিত্বে বিশ্বাস স্থাপন আদৌ সংগত নয়।

[4] চেতনার অসাম্য: লকের মতে, সহজাত ধারণা বলে যদি কোনো কিছু থেকেই থাকে, তাহলে সকলেই এরূপ ধারণা সম্পর্কে সমভাবে সচেতন হত। কিন্তু এমন কোনো ধারণাই প্রকৃতপক্ষে নেই যার সম্পর্কে সমস্ত মানুষই সমভাবে সচেতন। কোনো বিষয় সম্পর্কে শিশু এবং বৃদ্ধের চেতনা, শিক্ষিত ও অশিক্ষিতের চেতনা অবশ্যই এক নয়। সুতরাং, আন্তর ধারণার কোনো অস্তিত্বই নেই।

[5] সহজাত ধারণা সম্বন্ধীয় ভাবনার পার্থক্য: ঈশ্বরের ধারণা, নিত্যতার ধারণা, কার্যকারণ সম্পর্কের ধারণা-এগুলিকে দেকার্ত আন্তর বা সহজাত ধারণারূপে অভিহিত করেছেন। কিন্তু লক্ষ দাবি করেন যে, এগুলি সম্পর্কে সকলের ধারণা এক নয়। সুতরাং, সহজাত বা আন্তর ধারণা বলে কিছু নেই।

[6] সাধারণ ধারণাকে সহজাত ভাবার ভ্রম: কোনো ধারণা সকলের মধ্যে সমানভাবে উপস্থিত থাকলেও তা থেকে অনিবার্যভাবে প্রমাণিত হয় না যে, সেই ধারণাটি সহজাত। যেমন- জলের ধারণা সকলের মধ্যেই সমভাবে উপস্থিত যে, জল একটি তরল পদার্থ এবং জল তৃয়া নিবারণ করে। জলের এরূপ ধারণাটি আমাদের অভিজ্ঞতার দ্বারাই প্রমাণিত, সহজাতভাবে নয়।

মন্তব্য: সুতরাং, আন্তর ধারণাকে স্বীকার করার বিষয়টি একেবারেই অবাস্তব। দার্শনিক লক তাই সহজাত ধারণার বিষয়টিকে নস্যাৎ করেছেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নবীনতর পূর্বতন